শপিং মল

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত রাজধানী সুপার মার্কেটটি ১৯৯৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। মার্কেটটি ঢাকা

পুরান ঢাকার ইসলামপুর দেশের বৃহত্তম পাইকারি কাপড়ের বাজার। সালোয়ার-কামিজ, শার্ট-প্যান্ট-পাঞ্জাবি, শাড়ি-লুঙ্গি থেকে শুরু করে বিভিন্ন

রাজধানীর ব্যস্ততম এলাকা গুলিস্তানসংলগ্ন ফুলবাড়িয়া সিটি সুপার মার্কেট এর এক থেকে সাত তলা পর্যন্তই জুতার

বিয়ের শাড়ি কেনার জন্য এখনও বেশিরভাগ মানুষের প্রথম পছন্দের স্থান রাজধানীর মিরপুর ১০ নম্বরের বেনারসি

মৌচাক মার্কেট ঢাকা শহরের প্রাচীনতম এবং বিখ্যাত শপিং মলগুলোর মধ্যে একটি। সম্ভবত এটি চল্লিশের দশকে

খোলাঃ শনিবার-বৃহস্পতি সকাল ১০ঃ০০ টা থেকে রাত ৯ঃ০০ টা। সাপ্তাহিক বন্ধ শুক্রবার। ঠিকানাঃ জাহাজ কোম্পানির

১৯৯৯ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধা

১৯৯৮ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধা

২০০৩ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

খোলাঃ মঙ্গলবার-শনিবার সকাল ১০ টা থেকে রাত ৯ টা। সোমবার দুপুর ২ টা থেকে রাত

খোলাঃ শনিবার-বৃহস্পতি সকাল ৯ঃ০০ টা থেকে রাত ১০ঃ০০ টা সাপ্তাহিক বন্ধ শুক্রবার ঠিকানাঃ ফাতেমা সেন্টার

১৯৯৮ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, ক্যাপসুল লিফট, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই

১৯৯৯ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

২০০৪ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

২০০৮ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

২০০৭ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

১৯৯২ সালের জানুয়ারী মাসে ইস্টার্ন প্লাজা যাত্রা শুরু করে। ঢাকা শহরের উন্নত মানের মার্কেটগুলোর মধ্যে

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধা এবং টাইলস সজ্জিত নতুন ভবনে অবস্থিত।

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস সজ্জিত নতুন

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

২০০৩ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস

১৯৯০ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। সুপার মার্কেটটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর সুবিধা এবং টাইলস

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত এবং টাইলস সজ্জিত নতুন

শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন এবং টাইলস সজ্জিত নতুন ভবনে অবস্থিত। এখানে মোট দোকান সংখ্যা

এই শপিং মলটি একটি ঐতিহ্যবাহী শপিং কমপ্লেক্স। এখানে মোট দোকান সংখ্যা ১৮০ – ২০০ টি।

১৯৯৮ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

১৯৯৮ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধা

১৯৯০ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধা

২০০৯ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, লিফট এবং এস্কেলেটর সুবিধা,

২০০১ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত রাজধানী সুপার মার্কেটটি ১৯৯৫ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। মার্কেটটি ঢাকা

ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের অধীন এই মার্কেটটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৬৮ সালে। এটি গুলশান এলাকার একটি প্রখ্যাত

২০০৭ ইং সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

তিলোত্তমা ঢাকা মহানগরীর অভিজাত গুলশান ১ নং গোলচত্ত্বরের সন্নিকটে ২০০১ সালে যাত্রা শুরু করে নাভানা

গ্রেটওয়াল শপিং সেন্টারটি ২০০৩ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় রাজধানীর সদরঘাটে। রাজধানীর সদরঘাট এলাকাসহ পুরানো ঢাকা এলাকার

এটি শীতাতপ নিয়ন্ত্রীত একটি শপিং কমপ্লেক্স। এটি ৭ তলা বিশিষ্ট ভবনের প্রথম এবং দ্বিতীয় তলা

এটি একটি শপিং কমপ্লেক্স। এটি ৩ তলা বিশিষ্ট ভবন। প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৮৬ সালে। মার্কেটের দোকানগুলো

২০০২ সালে উত্তরা ৭ নম্বর সেক্টরে নর্থ টাওয়ার চালু হয়। ১৩ তলা ভবনের নিচের দিকে

২০০৬ সালে উত্তরায় মাসকট প্লাজার যাত্রা শুরু হয়। সাপ্তাহিক ছুটি বুধবার ছাড়া প্রতিদিন সকাল ৯টা

ঢাকার অভিজাত এলাকা গুলশানে গড়ে ওঠা শপিং সেন্টারগুলোর মধ্যে ল্যান্ডমার্ক শপিং সেন্টার অন্যতম। ১৯৮৫ সালে

১৯৯৫ সালে উত্তরার আজমপুরে ‘রাজউক উত্তরা কমার্শিয়াল কমপ্লেক্সে'র যাত্রা শুরু হয়। উত্তরা আজমপুর বাসস্ট্যান্ডের পাশে

পিংক সিটি শপিং কমপ্লেক্স ২০০৭ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এই শপিং কমপ্লেক্সে ৮০% বিদেশী এবং ২০%

রাপা প্লাজা ২০০০ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এখানে ধানমন্ডি এবং এর আশপাশের এলাকার মানুষ শপিং করতে

১৯৯১ সালে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। নায়ক রাজ রাজ্জাক শপিং কমপ্লেক্সটির স্বত্বাধিকারী। সুসজ্জিত ছয় তলা বিশিষ্ট

অরচার্ড পয়েন্ট শপিং মলটি ধানমন্ডির মিরপুর রোডে অবষ্ঠিত। এই শপিং মলটি আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্পন্ন, এস্কেলেটর

আধুনিক সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত এই শপিং মলটি উত্তরাতে অবস্থিত। এখানে এস্কেলেটর সুবিধা, নিজস্ব স্ট্যান্ডবাই জেনারেটর সুবিধাসহ

ধানমন্ডি এলাকার অভিজাত শপিং সেন্টার সীমান্ত স্কয়ার। ধানমন্ডি এলাকার মানুষের জীবনকে আরও উপভোগ্য ও সহজতর

বসুন্ধরা সিটি বসুন্ধরা গ্রুপের নির্মিত দক্ষিণ এশিয়ার বৃহত্তম শপিং মল। বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার পান্থপথে কারওয়ান

বিশ্বের তৃতীয় এবং এশিয়ার সর্ববৃহৎ শপিংমল হিসেবে পরিচিত যমুনা ফিউচার পার্ক। রাজধানীর কুড়িলে অবস্থিত এই